ঈমানের উপকারিতা || Aazeen Of Islam || এসো আলোর পথে

ঈমানের উপকারিতা

 

ঈমানের উপকারিতা অসীম, আল্লাহ তায়ালা পবিত্র কোরআন বলেন

الله ولي الذين أمنوا یخرجهم من الظلمات الى النور.

অর্থাৎ :-

“আল্লাহ্তায়ালা ঈমানদারদের বন্ধু,

তিনি তাদের অন্ধকার হতে বের করে সত্যের আলােকে পৌঁছে দেন।”

বস্তুতঃ আল্লাহ্ তায়ালা যার বন্ধু তিনি নিজেই তাকে আলাের দিশা দেন, তাকে পথ ভ্রষ্ট করতে পারে কে?

আল্লাহর বন্ধুতু লাভের চেয়ে বড় পাওনা তার আর কি থাকতে পারে?

বিশ্বব্রহ্মাণ্ডের মালিক আল্লাহ তায়ালার প্রিয় সে ব্যক্তি, যার পদ-ধুলি গ্রহণ করে ধন্য হওয়ার জন্য সমগ্র মাখলুক ব্যাকুল। তার এ উন্নত মর্যাদা লাভের উৎস কোথায়?

কিসের কল্যাণে তিনি এ মরতবা লাভ করলেন?

 

Aazeen Of Islam

এটা শুধু তার ঈমানের বরকতেই,

ঈমানের বরকতে মানুষ অনেক রকম পাপ ও সামাজিক অনাচার হতে আত্মরক্ষা করে থাকে।

যেমন, কোন রােজাদার ব্যক্তি রােজার দিনে নিজ নফসের তাড়নায় ও শয়তানের প্রলােভনে উদ্বুদ্ধ হয়ে নির্জনে কোন কিছু খানাপিনা করতে গেল; কিন্তু হঠাৎ মনে পড়ল আমার এ খানাপিনার ব্যাপারটা যদিও কোন মানুষ দেখতে পাচ্ছে না, কিন্তু “সামীউম বাছির” আল্লাহ্ তায়ালা তাে দেখছেন। তার দৃষ্টির অগােচরে কিছুই নেই।

 

 

এমতাবস্থায় আমি যদি তার একটি ফরজ লংঘন করি, তবে তিনি আমাকে শাস্তি দিবেন, একথা ভেবে সে সেখান হতে চলে আসল এবং যথারীতি রােজা পালন করল।

সুতরাং ভাবার বিষয় একমাত্র আল্লাহর অস্তিত্বে বিশ্বাসই তাকে একটি ফরজ তরক করার জঘন্য পাপ হতে রক্ষা করেছে।

কোন একজন রাতের বেলা অন্যের ঘরে চুরি করার নিয়তে প্রবেশ করল, কিন্তু কোন এক মুহূর্তে অন্তরে জাগল, গৃহস্তেরা হয়ত আমার কার্যকলাপ টের পেল না; কিন্তু আল্লাহ তায়ালা তাে ঘুমিয়ে নেই।

তিনি তাে আমার কাণ্ড-কীর্তি সবই দেখছেন কাল কেয়ামতের দিন যখন এ ব্যাপারে আমি জিজ্ঞাসাবাদের সম্মুখীন হব, তখন তাে আমার কোনই জবাব থাকবে না।

এ কথাগুলাে অন্তরে উদয় হওয়ার সাথে সাথেই সে চুরি হতে বিরত হয়ে আপন ঘরে ফিরে আসল। এভাবে আল্লাহর অস্তিত্বে বিশ্বাস মানুষকে বহু পাপাচার হতে বাচিয়ে রাখে।

Aazeen Of Islam