মিরাজ ও বিজ্ঞান Pdf Download

Welcome to Aazeen Of Islam


আমাদের ফেসবুক পেইজ: https://www.facebook.com/AazeenOfIslam/


আমাদের ইউটিউব চ্যানেল : https://www.youtube.com/c/AazeenOfIslam

Aazeen Of Islam.com শুদ্ধ ইসলামী জ্ঞানের নানা উপকরণের একটি সমৃদ্ধ ভাণ্ডার
এখানে আপনারা আপাদত পাচ্ছেন ২০০+ ইসলামিক বই এবং পার‍্য প্রতিদিন ই নতুন নতুন বই আপলোড দেয়া হচ্ছে আমাদের সাইট টিতে
এছাড়াও আপনারা আ,আমাদের সাইটিতে পাচ্ছেন ইসলামি অডিও/ ভিডিও লেকচার এবং বিভিন্ন ক্বারীর কোরআন তিলাওয়াত,
আরও যুক্ত হতে যাচ্ছে অনেক কিছু যার জন্য আমরা প্রতিনিয়তই আপডেটের কাজ চালিয়ে যাচ্ছি।
আমাদের মূল উদ্দেশ্যঃ
১। দ্বীন প্রচার,
২।কম সচেতন মুসলিমদের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টি করা,
৩।আমুসলিম ও নাস্তিকদের মাঝে ইসলামের সঠিক চিত্র তুলে ধরা,
৪।সকলের ভ্রান্ত ধারণার অবসান ঘটানো


“Disclaimer”
১। আমাদের উদ্দেশ্য মোটেও ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়ানো নয়
২। আমাদের বই গুলো আমরা কখনো নিজে Pdf করে থাকি না করলেও অনুমোদন নিয়েই করা হয়ে থাকে
৩।বইগুলো যেহেতু আমাদের কালেক্টেড তাই প্রাকশণীর আমাদের উপর কোন অভিযোগ গ্ণ্য হবে না সেক্ষেত্রে যে Pdf টি করেছে তার কাছে আপনি ক্লেইম করতে পারেন।

আমাদের সাইটের APP
(NOW AVAILABLE ONLY FOR ANDROID )


https://drive.google.com/file/d/1Yh5xFhQ8-dLvWT5bprPtixdjDsACsinC/view?usp=sharing

“BOOK REVIEW”

লেখক: আশরাফ আলী থানভী (রহঃ)

পৃষ্ঠা : ৯৯

সাইজ : ৫.২৭মেগাবাইট

মি’রাজের রাতে বাইতুল মুকাদ্দাস পর্যন্ত হুজুরের সশরীরে গমন সম্বন্ধে অবিশ্বাসকারী কাফির এবং বিরূপ ব্যাখ্যাকারী বেদআতী ও ফাসেক হইবে।

 কেননা এই পর্যন্ত যাওয়া সম্বন্ধে কুরআনে স্পষ্ট উল্লেখ রহিয়াছে । 

আর সম্মুখে আসমানের দিকে গমন সম্বন্ধে অবিশ্বাসকারী বা বিরূপ ব্যাখ্যাকারী উভয়ে বেদআতী।

 যদিও সূরা ‘আন্নাজমের আয়াতে প্রায় প্রকাশ্যেই হুজুরের আসমানে আরােহণের কথা উল্লেখ রহিয়াছে। তথাপি উক্ত আয়াতে এইরূপ অর্থ হওয়ার সম্ভাবনা রহিয়াছে যে, হুজুর (সঃ) দ্বিতীয় বার জিবরাঈলকে সিরাতুল মুন্তাহার নিকট দাঁড়ান অবস্থায় দেখিয়াছেন, তাহাতে হুজুরের সেই পর্যন্ত যাওয়া অকাট্যরূপে প্রমাণিত হয় না। 

ডাউনলোড লিকংটি নিচে দেয়া হলো

মিরাজ ও বিজ্ঞান Pdf DownloadDownload

অতএব তাহার আসমানে আরােহণের কথা অবিশ্বাস করিলে কাফির বলা যাইবে না। মি’রাজ রাত্রিতে হুজুর (সঃ) আল্লাহ তাআলাকে স্বচক্ষে  দেখিয়াছিলেন কি না? একথার মধ্যে মতভেদ আছে।

পূর্ববর্তী ও পরবর্তী ওলামায়ে কেরামগণ এ বিষয়ে মতভেদ করিয়াছেন, প্রত্যেক পক্ষেরই।