ইসলামী ব্যাংকিং : বৈশিষ্ট্য ও কর্মপদ্ধতি

বাংলাদেশ ইসলামিক সেন্টার

শাহ মুহাম্মদ হাবীবুর রহমান

অধ্যাপক, অর্থনীতি বিভাগ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

বাংলাদেশ ইসলামিক সেন্টার

ঢাকা

শারীয়াহসম্মত শিল্পোদ্যোগ ও ব্যবসায়ে অংশগ্রহণ : ইসলামী ব্যাংকের দ্বিতীয় বৈশিষ্ট্য হচ্ছে শারীয়াহসম্মত শিল্পোদ্যোগ ও ব্যবসায়ে অংশগ্রহণ। শিল্পোদ্যোগ ও ব্যবসা-বাণিজ্যে পুঁজি বিনিয়ােগের সময় ঐসব উদ্যোগ শারীয়াহর বিচারে হালাল

হারাম তাও ইসলামী ব্যাংক বিচার করে থাকে। প্রচলিত পদ্ধতিতে কোন ঋণ দেওয়ার সময় আদৌ বিচার করা হয় না যে, যে উদ্দেশ্যে ঋণ দেওয়া হচ্ছে সেই কাজটি সমাজের জন্য কল্যাণকর না ক্ষতিকর। সমাজের তাতে মঙ্গল হবে, না সর্বনাশ ডেকে আনবে। সমাজের বিপর্যয় ও সর্বনাশ সৃষ্টিকারী মদ ও মাদক দ্রব্যের ব্যবসা, চরিত্রবিধ্বংসী নানা ধরনের উপকরণসহ সিনেমা, নাচ-গান, তামাক ও সিগারেটের মতাে জনস্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর সামগ্রী উৎপাদন, মজুতদারী, মুনাফাখখারী প্রভৃতি নানা

কাজে সুদী ব্যাংকগুলাে ঋণ দিয়ে থাকে। এতে সমাজের সর্বনাশ আরও বেশি করে ডেকে আনা হয়। আগুনে পেট্টোল ঢাললে যেমন আগুন আরও দাউ দাউ করে জ্বলে ওঠে এও ঠিক তেমনি। সমাজ হতে অনাচার, পাপাচার, অশ্লীলতা প্রভৃতি দূর করার চেষ্টা করা দূরে থাক সুদী ব্যাংকগুলাে নির্বিচারে ঋণ দেওয়ার ফলে এসব বরং আরও বৃদ্ধি পাচ্ছে। ইসলামী ব্যাংক এর প্রতিরােধ করতে চায়। এ জন্যই শুধু শারীয়াহসম্মত শিল্প কল-কারখানা, ব্যবসাবাণিজ্য প্রভৃতিতে এই ব্যাংক সহযােগিতা করে। ব্যাংক দু’ভাবে এটি করে থাকে ? (ক) লাভ-লােকসানের অংশীদারিত্বের চুক্তিতে অংশগ্রহণ, এবং (খ) প্রত্যক্ষ অংশগ্রহণ।